ফেসবুক গ্রুপে মেম্বার বৃদ্ধির উপায় ও ব্যবসার প্রসারে ফেসবুক গ্রুপ

আপনার ব্যবসায় প্রচারের জন্য একটি ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করার কথা ভাবছেন? আপনি সঠিক স্থানে আসছেন। আপনি এটি কিভাবে করতে পারবেন তা জানতে পড়ুন।

991 VIEWS

increase-membership-in-facebook-group

আপনার ব্যবসায় প্রচারের জন্য একটি ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করার কথা ভাবছেন? আপনি সঠিক স্থানে আসছেন। আপনি এটি কিভাবে করতে পারবেন তা জানতে পড়ুন।

কেন ব্যবসার জন্য ফেসবুক গ্রুপ?

আপনি ব্যবসার উন্নয়নের জন্য ফেসবুক গ্রুপ খোলার কথা ভাবছেন? তাহলে জেনে দরকার কেন ও কিভাবে ফেসবুক গ্রুপ আপনার কাস্টমারের কাছে পৌছানোর জন্য দরকার।

গত কয়েক বছরে, ফেসবুক অর্থপূর্ণ ইন্টারেকশন এবং গ্রুপকে সমর্থন করে। 2018 এর পরিসংখ্যান দেখায় যে এক বিলিয়নেরও বেশি লোক ফেসবুক গ্রুপের সদস্য। এর মধ্যে 10% অর্থবহ গ্রুপের সাথে সম্পর্কিত যা ফেসবুকে কারও অভিজ্ঞতার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠছে।

ব্যবসায়ের জন্য ফেসবুক গ্রুপ ব্যবহার করার আরও অনেকগুলি উপায় রয়েছে, তাই আপনাকে প্রথমে যা করতে হবে তা হল এটির মাধ্যমে আপনি কী অর্জন করতে চান তা স্থির করুন। যেমন: আপনি গ্রুপের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করতে চান বা গ্রুপ থেকে আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক আনতে চান এমন কিছু।

১. মার্কেটিংয়ের উদ্দেশ্যে ফেসবুক গ্রপের ব্যবহার

যদিও এটি প্রায় কয়েক বছর হয়ে গেছে, ফেসবুক সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং দক্ষ সামাজিক মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হিসাবে 79% আমেরিকান এটি ব্যবহার করছে।

গত কয়েক বছর ধরে, ফেসবুক গ্রুপে ভিজিটরের সংখ্যা বাড়ছে জ্যামিতিক হারে। তাই এটাকে মার্কেটিং টুল হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে আপনি কোনোকিছুর মার্কেটিং করতে পারেন। আপনার সাইটের ভিজিটর বাড়াতে পারেন। আপনার অনলাইন শপের কাস্টমার জেনারেট করতে পারেন খুব সহজে। মার্কেটিংয়ের কিছু কৌশল প্রয়োগ করে আপনার কাঙ্খিত আশা পূরণ করতে পারবেন।

সবসময় নিজের পণ্য বা সার্ভিস সম্পর্কে কথা বলা আপনার কাস্টমারের কাছে বিরক্তির কারণ।

মার্কেটার

একটা গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব গ্রুপে সবসময় তাদের সার্ভিস সম্পর্কে কথা বলে তাদের ভিজিটর অনেক কম। অধিকাংশ সময় নিউ মার্কেটাররা ভুলে যান কাস্টমারের একটি ফিলিংস রয়েছে। আপনাকে সেটা বুঝে কথা বলতে হবে।

২. কাস্টমার সার্ভিসের জন্য গ্রুপের ব্যবহার

আপনার যদি এমন কোনও ব্যবসা থাকে যার গ্রাহক পরিষেবা বিভাগের প্রয়োজন হয় এবং ব্যবহারকারীরা সমস্যা সমাধানের জন্য বা কীভাবে বৈশিষ্ট্যগুলি কাজ করে সে সম্পর্কে পরামর্শের জন্য আপনার কাছে ফিরে আসে, একটি ফেসবুক গ্রুপ আপনার জন্য আদর্শ হতে পারে।

তবে আপনার কাস্টমার ডিপার্টমেন্টকে সরিয়ে বা প্রতিস্থাপন করে ফেলবেন না। এটা আনপ্রফেশনাল দেখায়। আপনার কাস্টমার সার্ভিস ডিপার্টমেন্টের পাশাপাশি ফেসবুক গ্রুপ আদর্শ হতে পারে।

লোকেরা তাদের প্রশ্নগুলি করতে পারে এবং একই সমস্যার মুখোমুখি অন্যান্য ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে উত্তর পেতে পারে। তাই আপনার কাস্টমার সার্ভিস ডিপার্টমেন্টের ‍উপর থেকে কিছুটা চাপ কমবে। এটা আবার মাউথ মার্কেটিংয়ের কাজ করবে।

৩. ফিডব্যাক গ্রহণ করা

কিছু সময় আপনার ব্যবসার বিভিন্ন সার্ভিসের জন্য ফিডব্যাক দরকার হয়। কাস্টমার ফিডব্যাক গ্রহন করতে গ্রুপের ব্যবহার করুন। আপনার ওয়েবসাইটে এসে কেউ ফিডব্যক দিতে চায় না। কিন্তু গ্রুপের মাধ্যমে নিলে কাস্টমাররা খুব সহজে তাদের আইডিয়া শেয়ার করতে পারে। তাছাড়া ওয়েবসাইট মেইটেন্যান্সের ঝামেলা থাকল না।

৪. ব্রান্ডের একটি কমিউনিটি তৈরি করুন

আপনার ব্রান্ডের একটি কমিউনিটি ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে সহজে তৈরি করতে পারবেন। আপনার ব্রান্ডটি অনেক বেশি পরিচিতি পাবে মানুষের কাছে।

একটি ব্রান্ডের স্ট্রং নেটওয়ার্ক গড়েতে ফেসবুক গ্রুপ অনেক অনেক হেল্পফুল।

৫. কন্টেন্ট স্ট্রাটেজির অনুুপ্রেরণা

আপনি যখন বাইরের লোকের কাছে আপনার আইডিয়া শেয়ার করবেন। সেটা যদি ভালো ও কার্যকারী হয় তবে অবশ্যই আপনাকে প্রশংসা করা হবে। যেটি আপনার কাজের গতিকে অনেকগুন বাড়িয়ে দিবে।

ফেসবুক গ্রুপ বনাম ফেসবুক পেজ

ফেসবুক এটি সংজ্ঞায়িত করেছে, “ফেসবুক পেজ জনসাধারণের ব্যক্তিত্ব, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সংস্থা এবং অন্যান্য সত্তাকে ফেসবুকে একটি অথেনটিক এবং জনসাধারণের কাছে রিপ্রেজেন্ট করতে সক্ষম করে।”

অন্যদিকে গ্রুপগুলি, “একটি সাধারণ কারণ, ইস্যু বা ক্রিয়াকলাপকে সংগঠিত করতে, উদ্দেশ্য প্রকাশ করতে, সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করতে, ফটো পোস্ট করতে এবং সম্পর্কিত সামগ্রী আলোচনা করার জন্য লোককে একত্রিত হওয়ার অনুমতি দেয়।”

ব্যবসার প্রসারের জন্য ফেসবুক গ্রুপ ও পেজ দুটোই ব্যবহার করতে পারেন। তবে যখন দুটো জিনিসের তুলনা করতে হবে তখন বলব, মানুষের কাছে আপনার ব্রান্ডকে পৌছাতে ফেসবুক পেজের চেয়ে গ্রুপ ৬০% বেশি কার্যকারী মাধ্যম।

কীভাবে ফেসবুক গ্রুপের সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি করা যায়।

ফেসবুক গ্রুপের সদস্য বাড়ানোর জন্য আমাদের কাছে কোনও যাদু রেসিপি নেই, তবে আমরা আমাদের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে পারি।

আপনি কেবল সংখ্যার দিকে নজর দিলে একটি ফেসবুক গ্রুপ বৃদ্ধি করা সহজ হতে পারে তবে আপনি নিজের ফেসবুক গ্রুপে থাকা ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করা কিছুটা শক্ত। ফেসবুক গ্রুপের সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধিতে ৭টি পদ্ধতি নিয়ে কথা বলব।

১. এক্সক্লুসিভ কমিউনিটি হিসাবে পরিচিত হোন

আপনার ফেসবুক গ্রুপটাকে সুন্দরভাবে সাজান। যেন যেকেউ দেখে গ্রুপের মেম্বার হওয়ার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করে।

গ্রুপটার মাধ্যমে মানুষের মনের ভিতর ফিলিংস তৈরি করুন, আহ এমন গ্রুপ আর পাবো না। এটি করার জন্য আমার কিছু টিপস আছে।

  • ব্যক্তিগত গ্রুপ করবেন না
  • গ্রুপের উদ্দেশ্য থাকবে মানুষের যেকোনো সমস্যার সমাধন করা।
  • বেশি রুল সেট করবেন না।
  • আপনার নিজের প্রফাইল ব্যবহার করতে দিধা করবেন না। কেউ কিছু মনে করবে না।
  • বেশি ভাববেন না,,, মজা হিসেবে গ্রহণ করুন।

২. আপনার সহকর্মীদের যোগদানে উৎসাহ দিন

আমরা লজ্জার কারণে অনেক সময় আমাদের কাছের মানুষদের সাহায্য নিই না। এখানে লজ্জার কিছু নেই আপনি কোনো খারাপ কাজ করছেন না।

আপনার সহকর্মীদের কাছে আপনার গ্রপের ইনভাইট পাঠান। এবং তাদেরকে বলুন তারা যেন তাদের বন্ধুদের কাছে ইনভাইট পাঠায়। এভাবে খুব সহজে আপনার গ্রুপের মেম্বার বৃদ্ধি করতে পারেন।

৩. শিক্ষনীয় কন্টেন্ট তৈরি করুন

মানুষের দৃষ্টি আকর্ষন করতে শিক্ষনীয় কন্টেন্ট অনেক কার্যকারী। তাই শিক্ষামূলক কন্টেন্ট তৈরি করুন।

শিক্ষণীয় কন্টেন্ট মানুষকে হেল্প করে। মানুষ কখনও উপকার পেলে অবশ্যই আপনার কথা মনে করবে ও আপনার গ্রুপে যোগদিবে।

৪. গ্রুপ ব্যবহারকারীদের সাথে ইমোশনালি ইন্টার‌্যাক্ট করুন।

অধিকাংশ মানুষ ইমোশনাল হয়ে থাকে। তাদের ইমোশনকে শ্রদ্ধা করুন ও ইমোশনালি কানেক্টেড হওয়ার চেষ্টা করুন।

আপনি ইমোশনালি কানেক্টেড হতে পারলে আপনার গ্রুপের মেম্বার খুব দ্রুতই বৃ্দ্ধি পাবে। এবং আপনার ব্রান্ডের আলাদা করে প্রচার করার প্রয়োজন পড়বে না।

৫. কিছু টেকনিক্যাল বিষয়ের দিকে লক্ষ রাখুন

অটো মেম্বার এপ্রভাল আপশন চালু রাখুন। এতে সহজে আপনার গ্রপে মেম্বার বৃদ্ধি পাবে। বেশি রুল বা প্রশ্ন সেটকরা থেকে বিরত থাকুন। এতে নতুন মেম্বাররা যোগ হতে বিরক্তবোধ করতে পারে।

৬. মডারেটর এবং এডমিন

ফেসবুক গ্রুপে মেম্বার বাড়ানোর একটি কার্যকরী উপায় হল প্রথমত ফেসবুক গ্রুপে কয়েকজনকে মডারেটর হিসেবে যুক্ত করুন।

এছাড়াও আপনি তাদের কাছ থেকে ভালো ফলাফল আশা করার জন্য আপনার বিশ্বাস করা ব্যক্তিকে এডমিন হিসেবে যুক্ত করুন।

একটা করে আপনি তাদেরকে যে কোন একটি কাজের কথা বলুন এবং কাজের শিডিউল তৈরি করুন, আর সবাইকে কাজ ভাগ করে দিন।

এবং তাদেরকে বলবেন যে বড় বড় ফেসবুক গ্রুপে, আপনার গ্রুপের লিংক সহ কমেন্ট করতে, এবং কমেন্ট করার আগে ইন্টারেস্টিং কিছু লিখে দিতে।

যাতে করে যে কেউ এরকম ইন্টারেস্টিং টপিক দেখলে ক্লিক করতে বাধ্য হয়, এবং আপনার ফেসবুক গ্রুপে যুক্ত হতে অবশ্যই চায়।

প্রযুক্তির প্রতি চরম আকর্ষণ থেকেই টেলিকমিউনিকেশনে পড়ছি। প্রযুক্তির কঠিন বিষয়গুলি সহজভাবে মানুষকে বলতে খুবই ভাল্লাগে। এই ভালোলাগা থেকেই লেখালিখি শুরু। ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা আমার নেশা ও পেশা।

মন্তব্য করুনঃ-