কিভাবে ফ্রি ওয়েবাসাইট তৈরি করবেন- ফ্রি ডোমেইন হোস্টিংসহ।

কিভাবে ফ্রি ওয়েবসাইট বানানো যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হল। আমরা এখানে বিনামূল্যে ওয়েবসাইট তৈরির জন্য ব্লগার ডট কম প্লাটফর্মটি বেছে নিয়েছি।

1067 VIEWS

ব্লগার ডট কম

আপনার কি লেখালিখির শখ আছে বা ব্লগিং করে পকেটমানি আয় করতে চান? কিন্তু আপনার কাছে ডোমেইন হোস্টিং কেনার টাকা নেই অথবা আপনি টাকা ইনভেস্ট করতে চান না। তাহলে পোস্টটি আপনার জন্য।

আর্টিকেলটিতে আলোচনা করব কিভাবে ফ্রিতে একটি ওয়েবাসাইট তৈরি করবেন। এখানে ফ্রি বলতে সকলকিছু ফ্রিতে বোঝানো হয়েছে।

আপনাকে কোনো টাকা বিনিয়োগ করতে হবে না। ডোমেইন ও হোস্টিং এবং থিম সবকিছু পাবেন বিনামূল্যে। আপনি শুধু লিখবেন ও এডসেন্সের জন্য আবেদন করবেন।

এখন আপনাদের মনে একটা প্রশ্নের উদ্বেগ হয়েছে যে, কিভাবে সম্ভব? হ্যা অবশ্যই সম্ভব। আমি অনেকগুলো প্লাটফর্ম ঘাটাঘাটি করে একটা প্লাটফর্মকে বাছাই করেছি। এখানে আমি ব্লগার ডট কমের কথা বলছি।

ব্লগারের সুবিধা:

যতগুলি ফ্রি ওয়েবসাইট বানানোর প্লাটফর্ম আছে তার মধ্যে এটি সবচেয়ে বিশ্বস্ত। গুগলের একটি সার্ভিস হওয়ায় আপনি এটার উপর ভরসা রাখতে পারেন। এদের নিজস্ব ওয়েব এনালিটিক্স আছে ফলে কোনো ঝামেলা ছাড়াই আপনার সাইট মনিটারিং করতে পারবেন।

গুগলের সার্ভিস হওয়ায় ভালো মানের এসইও সার্ভিস পাবেন; কোনো ঝামেলা ছাড়াই এসইও অপটিমাইজ করতে পারবেন। এডসেন্স সহজে পেয়ে যাবেন যদি আপনার কন্টেন্ট ঠিক থাকে।

আপনি চাইলে কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারেন। যেমন: আমার www.example10x.blogspot.com ডোমেইনটা ব্লগারের দেয়া ডোমেইন; এটি দেখতে একটু কটু লাগে।

এই সমস্যা দুর করতে আপনি কাস্টম ডোমেইন যেমন: www.bnlite.com. এই ডোমেইন যোগ করতে পারবেন। তবে আপনার কাস্টম ডোমেইন কিনতে টাকা খরচ হবে।

কিভাবে ব্লগারে ওয়েবসাইট তৈরি করব:

আমি এখানে আলোচনার করব কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন। একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আলোচনা করব।

পোস্টটি অনেক বড় হতে পারে ধৈয্য নিয়ে পড়লে আপনার লাভ হবে, এটা আমার বিশ্বাস।

০১. Click SIGN IN বাটন

বিনামূল্যে একটি ব্লগিং বা বিজনেস ওয়েবসাইট তৈরি করতে www.blogger.com ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

আপনারকে সাইন আপ বা সাইন ইন করতে বলবে। আপনার যদি একটি জিমেইল একউন্ট থাকে তবে সাইন ইন বাটনে ক্লিক করুন।

সাইন ইন অপশন ব্লগার

যদি আপনার জিমেইল একিউন্ট না থাকে তবে, একটি একাউন্ট ক্রিয়েট করে নিবেন।

সাইন ইন বাটনে ক্লিক করার পর নিচের ছবি মতো আসবে, সেখান থেকে ই-মেইল সিলেক্ট করবেন।

০২. Choose your google account or Gmail

সিলেক্ট জিমেইল একাউন্ট

জিমেইল সিলেক্ট করার পর পাসওয়ার্ড দেয়ার আপশন আসবে। সেখানে যে জিমেইলটি সিলেক্ট করেছেন তার পাসওয়ার্ড বসান ও NEXT বাটনে ক্লিক করুন।

০৩. সঠিক পাসওয়ার্ড দিন ও Next বাটন ক্লিক করুন

সঠিক পাসওয়ার্ড দিন

আপনার জিমেইল একাউন্ট ও পাসওয়ার্ড দেয় ঠিক থাকলে নিচের পেজটি দেখতে পাবেন। আর যদি ভুল হয় আবার আগের জায়গায় ফিরে গিয়ে নতুন করে ফর্ম পূরণ করতে হবে।

০৪. সাইটের টাইটেল

জিমেইল ও পাসওয়াড দেয়ার পর নিচের চিত্রের মতো একটি ইন্টারফেস আসবে।

আপনার সাইটের টাইটেল কি হবে এখান থেকে সিলেক্ট করে দিতে পারবেন; তবে খুব বেশি চিন্তর দরকার নেই। যখন ইচ্ছা ড্যাসবোর্ড থেকে পরিবর্তন করতে পারবেন। সাইটের টাইটেল লিখে Next বাটনে ক্লিক করুন।

সাইটের টাইটেল আপশন

০৫. সাইটের URL দিন

আপনার সাইটের ইউআরএল বা লিংক কি হবে তা এখান থেকে সিলেক্ট করতে হবে।

খুব সাবধানতা অবলম্বন করবেন লিংক দেয়ার ক্ষেত্রে, এটি পরে আপনি চাইলেও পরিবর্তন করতে পারবেন না; যদিও পরিবর্তন করেন তবে আপনার সাইটের এসইও ড্রপ করবে।

ব্লগার সাইটের লিংক

১নং চিহ্নিত স্থানে যেখানে example10x লেখা সেখানে আপনার পছন্দের লিংকটি বসান। যদি ২নং চিহ্নিত স্থানটিতে this blog address is available মেসেজটি দেখায় তবে ৩নং চিহ্নিত next বাটনে ক্লিক করুন।

২নং স্থানে যদি unavailable লেখা দেখায় তবে লিংক পরিবর্তন করতে থাকুন; যতক্ষন না উপরের চিত্রের মতো available মেসেজটি দেখায়।

কাস্টম ডোমেইন যোগ করার ক্ষেত্রে যেকোনো লিংক দিন পরে ড্যাসবোর্ড থেকে কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারবেন।

Next বাটনে ক্লিক করলে, নিচের চিত্রের মতো ব্লগারের ড্যাসবোর্ড দেখতে পারবেন।

ব্লগারের ড্যাসবোর্ড

আপনার ওয়েবসাইটটি এখন রেডি। পৃথিবীর যেকোনো জায়গা থেকে এখন আপনার সাইটটি দেখা যাবে। আপনি নিজের সাইটটি দেখতে view blog বাটনটিতে ক্লিক করুন। আপনার সাইট দেখতে পাবেন। কোনো বন্ধুকে আপনার সাইট দেখাতে সাইটের লিংকটি তাকে দিন।

ব্লগারের ওয়েবসাইটটি এখন কাস্টমাইজেশন করতে হবে। দেখতে সুন্দর ও আকর্ষনীয় থিম সেটআপ করতে হবে। ব্লগপোস্ট লিখতে হবে। ড্যাসবোর্ড নিয়ে একটু ঘাটাঘাটি করলেই আপনি আপশন ও কাজ সম্পর্কে জানতে পারবেন।

RP: ব্লগিং করে আয় করার উপায়-২০২১।

Post Tags:-

প্রযুক্তির প্রতি চরম আকর্ষণ থেকেই টেলিকমিউনিকেশনে পড়ছি। প্রযুক্তির কঠিন বিষয়গুলি সহজভাবে মানুষকে বলতে খুবই ভাল্লাগে। এই ভালোলাগা থেকেই লেখালিখি শুরু। ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা আমার নেশা ও পেশা।

মন্তব্য করুনঃ-