ব্লগিং নিস কি ও ব্লগের টপিক নির্ধারণের উপায়।

ব্লগিং নিস কি? ব্লগিং নিস হল ব্লগের টপিক। যে টপিকের উপর ব্লগটি লেখা তাকে ব্লগের নিস বলে। যখন অধিকাংশ মানুষ একটি ব্লগিং শুরু করে তখন কোনো নিস নির্বাচন করে না। আজ একটি টপিক নিয়ে কথা বলে তো কাল আরেকটি টপিক নিয়ে আলেচনা করে। তারা শুধু টপিক জাম্প করে। আপনি আজ স্মার্টফোন নিয়ে লিখলেন তো কাল […]

1076 VIEWS

ব্লগিং নিস-bnlite.com

ব্লগিং নিস কি? ব্লগিং নিস হল ব্লগের টপিক। যে টপিকের উপর ব্লগটি লেখা তাকে ব্লগের নিস বলে।

যখন অধিকাংশ মানুষ একটি ব্লগিং শুরু করে তখন কোনো নিস নির্বাচন করে না। আজ একটি টপিক নিয়ে কথা বলে তো কাল আরেকটি টপিক নিয়ে আলেচনা করে। তারা শুধু টপিক জাম্প করে।

আপনি আজ স্মার্টফোন নিয়ে লিখলেন তো কাল ফ্যাশান এবং পরশু বা পরের সপ্তাহে স্বাস্থ্য বিষয়ক আলোচনা। এটা আপনার একটা বড় বাধা সৃষ্টি করে। এতে পাঠকের মন জয় করা বা আকর্ষণ করা সম্ভব হয় না। কারণ কোনো বিষয়ের উপর গভীর আলোচনা করা হয় না।

যেমন ধরুন– bnLite.com সাইটটি ব্লগার ও মার্কেটারদের জন্য নিয়োজিত।

এটার নিস হচ্ছে ব্লগিং, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, ওয়ার্ডপ্রেস, এসইও ইত্যাদি টপিকের উপর আলোচিত। আপতদৃষ্টিতে এখানে অনেক টপিক দেখেলেও মূলত ব্লগিং, মার্কেটিং এবং ইন্টাপেনিউরশিপ নিস।

ব্লগের টপিক নির্বাচনের অল্প কিছু টিপস।

আপনাকে যখন নিস নির্বাচন নিয়ে সিদ্ধান্ত দিতে বলা হয় তখন বড় একটা চিন্তাই পড়ে যান। তাছাড়া ব্লগিং এর নিস নিয়ে চিন্তার সময় একটা বিষয় খেয়াল বাখবেন।

যদি টাকা আয়ের জন্য ব্লগিং করেন তাহলে এমন টপিক বা নিস নির্বাচন করবেন না যেটাতে প্রচুর ভিজিটর হয় কিন্তু টাকা আয় হবে না।

যেমন ধরুন:

  • ফ্রি এসএমএস
  • ফ্রি ওয়ালপেপার
  • হটসএপস(whatsapp) টিপস
  • ফ্রি মুভি ডাউনলোড
  • ইত্যাদি

এসব টপিকের উপর প্রচুর ভিজিটর পাওয়া গেলেও আয়টা কম পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি বা অনেক সময় আয়ই করতে পারবেন না। অধিকাংশ সময় এসব সাইট গুগল এডসেন্স কতৃক মনিটাইজ দেয়া হয় না।

এমন অবস্থায়, আপনি এমন টপিক সিলেক্ট করবেন না যেটি নিয়ে আলোচনা আপনার জন্য কষ্টকর হয়ে দাড়ায়।

তাহলে ভালো টপিক কোনটি?

ভালো টপিক হল যেটি আপনার পছন্দের সাথে সম্পর্কযুক্ত, ট্রাফিক মোটামুটি ভালো, আর্থিকভাবে লাভজনক। আরো বলতে গেলে যে টপিকটি ভবিষ্যতে ভালো চলব।

কেন আপনি iPhone7 ‍নিয়ে ব্লগ বানাবেন যখন iPhone8 আগামী বছর আসছে। এবং iPhone7 তখন মানুষের কাছে কোনু ভ্যালু রাখে না।

নিস নির্বাচনের সময় এই ৪ টি মূলকথা মনে রাখা উচিৎ:

১. আপনার পছন্দ বা আগ্রহ

২. বিজনেস ভ্যালু (সিপিসি)

৩. মাসিক/ বছরের সার্চিং

৪. ট্রেন্ড এবং ভবিষ্যত আছে এমন টপিক।

এখন আমি কিছু আইডিয়া শেয়ার করব যেটি আপনাকে সঠিক নিস নির্বাচনে সহয়তা প্রদান করবে।

যদি আপনি অলরেডি সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন মাল্টিপল নিস করবেন তাহলেও কোনো চিন্তা করবেন না। কারণ যেকোনা সময় টপিক বা নিস পরিবর্তন করতে পারবেন।

০১. লিস্টিং করা

কোন টপিকে আপনার আগ্রহ বা পছন্দ বেশি? ক্রিকেট? টলিউড? গান? এগুলোর একটি লিস্ট করে ফেলুন।

লিস্টের আকার নিয়ে চিন্তা করবেন না। যত বড় হয় হতে দিন শুধু লিখতে থাকুন। এটা ২০, ৩০, ৪০ হোক তা নিয়ে চিন্তা করবেন না।

 ০২. প্যাশন অথবা অর্থ অথবা উভয়ই

কিন্তু ব্লগিং এর হটেস্ট টপিকের হওয়া উচিৎ নয় কি? যেটি প্রায় সবাই গুগল করে?

ভালো পয়েন্ট!

যেমন ধরুন টেকনলোজি এমন একটি টপিক যেটা পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষ গুগল করে জানতে চায়। কিন্তু আপনার এবিষয়ের উপর কোনো আগ্রহ নেই। এখন কি এই টপিকের উপর ব্লগিং করা উচিৎ শুধু এই কারণে যে এটা ট্রেন্ডিং, হটেস্ট নিস?

আবশ্যই, ‍যদি সময় দিতে পারেন ও খোজাখুজি করেন তাহলে ইন্টরনেট থেকে সকল তথ্য পেয়ে যাবেন ব্লগের ব্যপারে।

কিন্ত ব্লগিংয়ে সফলতা আসতে একটা বড় সময়ের দরকার।

আপনি আপনি ২জন করে প্রতি দিন ভিজিটর পাচ্ছেন। এভাবে ৬ মাস চলে গেল। আপনি কি ধৈয্য ধরে ব্লগটা চালাতে পারবেন? এবং আপনার কি কোয়ালিটি পোস্টে আগ্রহ থাকবে।

যেহেতু এই ব্যাপারে আপনার ইন্টারেস্ট জিরো, তাই ধেয্য ধরে ব্লগটা চালানো সত্যিই চ্যলেঞ্জিং বিষয়।

The Golden Roule: এমন টপিক সিলেক্ট করা উচিৎ নয় যেটাতে কোনো আপনার আগ্রহ নেই।

০৩. প্রতিযেগীতা: ক্রিকেট বনাম মাছ চাষ

ক্রিকেট খেলা আপনার খুব প্রিয়। খেতে, বসতে সবসময় ক্রিকেট নিয়ে চিন্তা করেন। তো চাচ্ছেন ক্রিকেট নিস নিয়ে কাজ করবেন।

তাহলে কি ক্রিকেট নিয়ে ব্লগিং শুরু করবেন?

অবশ্যই করতে পারেন কিন্তু এখানে একটা ছোট্ট সমস্যা আছে।

ক্রিকেটের ব্যাপক কম্পিটিশন। ক্রিকবাজ ডট কম, ক্রিকেট ডট ইনফো এরাও একই নিস নিয়ে কাজ করছে ও ব্যাপক জনপ্রিয়। এদের পরাজিত করে ভিজিটরদের কাছে পৌছুনো অনেক কষ্টকর।

ওকে কোনো সমস্যা নেই, ভাবলেন তাহলে মাছ চাষ নিয়ে ব্লগিং শুরু করি এখানে কম্পিটিশন কম। গুগলে রিসার্চ করে দেখলেন সত্যিই এটার প্রতিযোগীতা নেই বা শূণ্য। এবং মাসে হাতে গোনা কয়েকজন এই বিষয়ে সার্চ করে।

তাহেলে কি ব্লগিং নিস মাছ চাষের কথা সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছেন?

এখানেও সমস্যা রয়ে গেছে। কারণ এখানে তো অডিয়েন্স নেই বা হতে গোনা ১০-১৫ জন। অর্থাৎ জিরো প্রতিযোগীতা কিন্তু জিরো চাহিদা।

আসলে ব্লগের নিস নির্বাচন করার সময় আপনার নিস আগ্রহ, নিস প্রতিযোগীতা, চাহিদার পরিমাণে সমান বা সমতা রাখতে হবে।

আমি সিদ্ধান্ত নিলাম ব্লগিং নিস নিয়ে কাজ করব। এখানে প্রতিযোগী কম এবং আমি এই বিষয়ে প্যাশানেট ও ভিজিটর মোটামুটি ভালো। এবং পরবর্তীতে আরো চাহিদা বাড়বে বিষয়টির।

০৪. সুদূরপ্রসারী সম্ভাবণা

বর্তমান ইভেন্টগুলো অনেক বেশি জনপ্রিয় হয়। যাকে আমরা ভাইরাল হিসেবে আখ্যায়িত করে থাকি। এখানে ভিজিটর দ্রুত পাওয়া যায়।

যেমন ধরুণ আপনি www.election2020.com নামের ব্লগ শুরু করলেন। এখানে ২০২০ সালে অনেক ভিজিটর আসবে। কিন্তু ২০২৫ এ কোনো ভিজিটর আসবে না। এটাতে লং টার্ম আয় আসবে না।

এমন একটি টপিক পছন্দ ও নির্বাচন করুন যার লং টার্ম চাহিদা থাকবে। যেমন www.bnlite.com – ব্লগটি ব্লগিং নিস নিয়ে কাজ করছে। যেটার লং টার্ম বা সুদূরপ্রসারী সম্ভাবনা থাকবে।

০৫. কেন আমার কথা শুনবে?

এখন সময় এসেছে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার। উপরের পয়েন্ট বিবেচনায় আপনার লিস্ট ছোট হয়ে আসবে। সম্ভাবত ৩-৪ টি নিস লিস্টে বাকি থাকবে।

এবার এই ৩-৪ টির মধ্যে একটি বাছাইয়ের ক্ষেত্রে লক্ষ রাখবেন কোন টপিকটা ভালো জানেন। এমন কোন টপিক থাকছে যেটাতে মানুষকে একদম নতুন কিছু দিতে পারবেন।

এটা হতে পারে-

  • অভিজ্ঞতা( যেমন- ভ্রমণাবিষয়ক)
  • এমন কিছু যেটা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছেন
  • অথবা শুধু বেসিক কিছু( ব্যাক্তিগত ব্লগ মানুষের অনেক প্রিয় )।

আমার ক্ষেত্রে ব্লগিং এবং মার্কেটিং নিসের বিষয়। আমি ব্লগিং করে আপনাদের জানাতে চাই কত উপায়ে অনলাইনে আয় করা যায়।

একটা কথা মাথায় রাখবেন, ব্লগিং শুধু অন্যকে শিখানোর জন্য করা হয়। এখানে আপনার নিজের উপর বিশ্বাস তৈরি হয়। শুধু শিখানোর নাম ব্লগিং করা নয়, কিছু শিখাও ব্লগিংয়ের উপর পড়ে।

আমি যেমন আপনাদের মার্কেটিং শিখানোর জন্য একটা মার্কেটিং ক্লাসে জয়েন করেছি। আমি যেন আমার অডিয়েন্সদের ভালো কিছু দিতে পারি এজন্য প্রতিদিন নতুন কিছু শিখছি।

আমার বিশ্বাস উপরের ধাপগুলো ভালোভাবে ফলো করলে আপনার সঠিক নিস নির্বাচনে সমস্যা হবে না। আমি আবারও বলছি সঠিক নিস নির্বাচন ছাড়া ব্লগিং জগতে সফলতা প্রায় অসম্ভব।

Post Tags:-

প্রযুক্তির প্রতি চরম আকর্ষণ থেকেই টেলিকমিউনিকেশনে পড়ছি। প্রযুক্তির কঠিন বিষয়গুলি সহজভাবে মানুষকে বলতে খুবই ভাল্লাগে। এই ভালোলাগা থেকেই লেখালিখি শুরু। ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা আমার নেশা ও পেশা।

মন্তব্য করুনঃ-