ব্লগের প্রথম পোস্ট নিজের সম্পর্কে।

অনেক নতুন ব্লগার আছে যারা চিন্তা তো করে, কিন্তু ব্লগের প্রথমপোস্ট কি করা যায় তা নিয়ে চিন্তা করে না। তবে আপনার এটি নিয়ে একটিু….

1045 VIEWS

ব্লগের-প্রথম-পোস্ট-নিজের-সম্পর্কে

অনেক নতুন ব্লগার আছে যারা চিন্তা তো করে, কিন্তু ব্লগের প্রথমপোস্ট কি করা যায় তা নিয়ে চিন্তা করে না। আমি মনেকরি, প্রথম ব্লগপোস্টটা আপনার সম্পর্কে হওয়া উচিৎ।

হয়তো অনেকে অনেকদিন ধরে ব্লগিং করছেন কিন্তু ব্লগে নিজের সম্পর্কে কিছু লেখেন নাই। তাদের জন্য পোস্টটি।

আমি আপনাকে বলতে চাই, কেন আমাদের ব্লগে আমাদের সম্পর্কে লিখা উচিৎ। এগুলো লিখলে কি কি উপকার হয়। এবং না লিখার কারণে এতদিন কিকি মিস করেছেন।

প্রথম পোস্টটি দেখে যদি ব্লগার আকর্ষিত না হয় তবে আপনি তাদের ধরে রাখতে পারবেন না। এজন্য প্রথম পোস্টটা আপনার ব্লগের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

আসলে ব্লগিং অনেক সহজ এবং আনন্দদায়ক পেশা, যদি আপনি সঠিকভাবে করতে পারেন। সঠিক নিয়ম মেনে করতে পারলে ব্লগিংয়ে সফল হওয়া অনেক সহজ হয়।

তাহলে ব্লগিং জগতে সবাই সফল হতে পারে না কেন? সঠিকভাবে ও সঠিক নিয়মে না করার ফলে অধিকাংশ ব্লগার ব্যর্থ।

এই সঠিক নিয়মের একটি ছোট ধাপ হচ্ছে নিজের সম্পর্কে লেখা। কিভাবে নিজেকে সবার সামনে উপস্থাপন করা যায়?

ব্লগিংয়ের প্রথম পোস্ট কী হওয়া উচিৎ?

আপনি কে?

আপনি নতুন ব্লগার এবং অনলাইনে নতুন লিখছেন। তাহলে আপনার পরিচয়টা লিখুন। ধরলাম আমি আপনাকে বিশ্বাস করছি এবং আপনার ব্লগকে বুকমার্কে রাখলাম। তারপরও আপনার সম্পর্কে আমি জানতে চাইব।

মানুষ সবসময় চাই ডিপলেভেলের সম্পর্ক স্থাপন করতে। তাদের বলুন:

  • আপনার জীবনের কিছু অভিজ্ঞতার কথা।
  • এটি কি আপনার প্রথম ব্লগ?
  • নিজেকে পরিচয় করিয়ে দিন ব্যাক্তি হিসেবে বা একজন ব্লগার হিসেবে।

নিজের সম্পর্কে অনেক কথাই বলুন। তাদের বিশ্বাস অর্জন করুন। এবং কেন আপনার কথা তারা শুনবে তাও বলে দিন।

শুধুমাত্র নিজের সম্পর্কে লিখলে হবে না, আপনার কিছু প্রিয় মূহুর্তের ছবি দেখান। একটি ব্লগের পেছনে কে আছে তা জানলে সহজে মানুষ ব্লগের কথা বিশ্বাস করে নেয়।

আপনার ছবি আপনার ব্লগকে দর্শকের কাছে আরো বিশ্বাস যোগ্যতার প্রমান দেয়।

সারকথা, আপনার দর্শককে মূল্যায়ন করুন, তাদের যা জানার দরকার জানিয়ে দিন। তাদের কে বেশি তথ্য দিন, এটাই দর্শকের সাথে কানেকশন তৈরি করার সবচেয়ে সহজ রাস্তা।

কেন আপনি ব্লগিংয়ে?

এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট। যদি মানুষ না জানে আপনি কি করছেন, কেন করছেন, আপনার লাভ কি। তাহলে তারা কোন কারণে আপনাকে বিশ্বাস করবে।

আপনার উচিৎ দর্শকের ভিউ পয়েন্ট থেকে কিছু প্রশ্নোত্তর করা। যেমন:-

  • কেন কেউ আপনার ব্লগটি ভিজিট করবে?
  • এখানে তাদের দেখার জন্য কি আছে?
  • কেন দর্শকের জন্য কাজ করছেন?

দর্শককে বলুন কেন আপনি লিখছেন। তারা এটাকে প্রশংসা করতে পারে।এবং আরো বেশি করে আপনার সাথে কানেক্ট হতে পারে।

আপনার ব্লগকে কোথায় নিয়ে যেতে চান?

এটা উপরের প্রশ্নটার সাথে অনেক সাদৃশ্যপূর্ণ।

পাঠকরা আপনার ব্লগ থেকে কোন ধরণের কন্টেন্ট পাবে তা বলুন। সম্ভব হলে কখন তারা পরবর্তী পোস্টের আপডেট পাবেন। সম্ভবহলে সিডিউল করুন কোন দিন আপনি পোস্টের আপডেট দিবেন।

একের ভিতর সব এধরণের ব্লগ তৈরি করা থেকে দূরে থাকুন। ব্লগকে একটি নির্দিষ্ট টপিকের উপর ফোকাস করুন। যেটি আপনার ব্লগের বিশ্বস্তা বাড়াবে এবং বলবে আপনি এই বিষয়ের একজন এক্সপার্ট।

কাদের জন্য লেখাটি?

ব্লগে সফলতার জন্য এটা অনেক গুরুত্ব বহন করে। আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স সম্পর্কে বলুন।

  • কারা আপনার ব্লগটি দেখতে পারে বা পড়ে উপকার পেতে পারে?
  • তারা কারা যেমন (অলস, ব্যাস্ত, উচ্চবিলাসী ইত্যাদি)?

দর্শককে সহমর্মিতা দেখান তাদের বুঝতে সাহায্য করুন যে আপনি তাদের বিষয়ে আন্তরিক। তারা যেকোনো সমস্যায় আপনাকে পাশে পাবে।

একটা ইমোশনাল গল্প দিয়ে শুরু করুন। পাঠককে বুঝান শুধু তাদের জন্যই আপনার এখানে আসা।

তারা কিভাবে সংযোগ হবে?

দর্শককে বলেদিন কিভাবে আপনার সাথে তারা জড়িত হতে পারে।

  • কমেন্ট করবে?
  • অতিথি পোস্ট সম্পর্কে লিখুন।
  • কিভাবে তাদের প্রশ্নের উত্তর পাবে। তারা কি ই-মেইল করবে না কমেন্ট করবে।

পাঠক কিভাবে আপনার কাছে পৌছাতে পারে তা বলুন। কখনও পাঠকের সাথে মতোবিরোধ হলে পেশাগতভাবে আচরন করুন। খারাপ ব্যবহার গ্রহণযোগ্য নয়।

তাদের সাথে মতোবিরোধ হলে ‍বুঝিয়ে বলতে দ্বিধা করবেন না।

আপনি চাইলে প্রতি মাসের বা সপ্তাহের সিডিউল দিতে পারেন। যখন আপনি তাদের কথা শুনবেন ও তাদের প্রশ্নের উত্তর করবেন।

ব্লগিংয়ের ক্লিয়ার ধারণা দিন

আপনার ব্লগিং করার পেছনের কারনগুলো সম্পর্কে ধারণা দিন। আপনার ব্লগিংয়ের লক্ষ সম্পর্কে প্রথম পোস্টেই বলতে পারেন।

  • ব্লগের মাধ্যমে কি হাসিল করতে চান?
  • ৬-৭ মাসে আপনার ব্লগটা কোথায় দেখতে চান?

আপনার ব্লগিংয়ের পিছনের লক্ষটাকে শেয়ার করুন। যেটি থেকে আপনার সম্পর্কে পাঠক আরো পরিষ্কার ধারণা পেতে পারে।

যখন তাদের সাথে আপনার আকাঙ্খা শেয়ার করবেন তখন হয়তোবা তারা আপনার লক্ষ পূরণে সহয়তা করবে।

ভূমিকা পেস্ট লিখুন

ব্লগ সেটআপ করার পরেই যে আপনার মেইন পোস্ট লিখতে হবে এমন দিব্যি কেউ দেয়নি।

আপনি ভূমিকা পোস্ট লিখতে পারেন বা মূল পোস্ট শুরু করার জন্য যা লেখা দরকার তা লিখে নিতে পারেন।

আপনার মেইন পোস্ট যদি সব তথ্য বহন করে তবে আপনি ভুল পথে হাটছেন। আপনি বই লিখছেন না এটা মাথায় রেখে লিখুন।

যেমন ধরুন, ‘কিভাবে ব্লগিং শুরু করতে হয়।’ এইটি আমার সাইটের মূল পোস্ট। কিন্তু এই পোস্ট আলোচনা করতে গেলে অনেকগুলো বিষয় জনাতে হয় যেমন:- ডোমেইন, হোস্টিং, ‍থিম, কিভাবে কন্টেন্ট তৈরি করতে হয় ইত্যাদি।

এতগুলো বিষয় একটা পোস্টে আলোচনা করা অনেক কষ্টকর ও পড়াও ঝামেলা। এজন্য বিষয়গুলোকে আলাদা লিখে সংক্ষিপ্ত করে দিন এবং বিস্তারিত জানার জন্য লিংক দিন। যে সংক্ষিপ্ত বিষয়টা বুঝতে পারলো না সে লিংকথেকে বিস্তারিত জেনে নিবে। আর যে বুঝতে পারলো সে পড়া এগিয়ে নিল।

এতে ইউজার ফিডব্যাক ভালো আসে এবং আপনার কন্টেন্ট সবাই পছন্দ করবে।

আপনি একজন ওপেনমাইন্ড, সৎ এবং প্যাশানেট ব্লগার অবশ্যই তার ইঙ্গিত করতে হবে। তাদের আরো বুঝাতে হবে আপনি কোনো প্রতারক বা ভন্ডামি করার জন্য এখানে আসেন নাই। তাদের সাহায্য করা একমাত্র উদ্দেশ্য।

Post Tags:-

প্রযুক্তির প্রতি চরম আকর্ষণ থেকেই টেলিকমিউনিকেশনে পড়ছি। প্রযুক্তির কঠিন বিষয়গুলি সহজভাবে মানুষকে বলতে খুবই ভাল্লাগে। এই ভালোলাগা থেকেই লেখালিখি শুরু। ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা আমার নেশা ও পেশা।

মন্তব্য করুনঃ-