টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয় করার উপায় | কিভাবে টেলিগ্রামে আয় করা যায়।

টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয় করার কিছু উপায় আলোচনা করা হয়েছে। টেলিগ্রাম থেকে আয়ের ৫টি উপায় কি কি? How make money on telegram in Bengali.

1039 VIEWS

টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়

টেলিগ্রাম থেকে ইনকাম করা যায়, এটাই অনেকে জানে না। অন্যান্য সোস্যাল সাইটের মতো টেলিগ্রাম থেকেও আয় করা যায়।

আয় করার জন্য আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেল বা গ্রুপের দরকার হবে। সেই গ্রুপ বা চ্যানেলে যদি অনেক ফলোয়ার বা মেম্বার থকে তবে আয় করতে পারেন।

টেলিগ্রামের চ্যানেল কি?

চ্যানেল হচ্ছে টেলিগ্রাম ম্যাসেজিং এপস এর একটি ফিচার। এটা অনেকটা ফেসবুক পেজের মতো। এখানে এডমিন বিভিন্ন পোস্ট করে থাকে।

টেলিগ্রাম চ্যানেল ও গ্রুপ
টেলিগ্রাম চ্যানেল ও গ্রুপ

টেলিগ্রাম গ্রুপ কি?

টেলিগ্রামে গ্রুপের ফিচার অনেকটা ফেসবুক গ্রুপের মতো। এখানে সকল ব্যবহারকারী পোস্ট করতে পারে।

এখানে গ্রুপচ্যাট করার অপশনও আছে।

টেলিগ্রাম চ্যানেল ও গ্রুপের মেম্বর বাড়ানোর উপায়?

আপনি আপনার ব্যবসার প্রচার করার জন্য গ্রুপ খুলবেন না চ্যানেল খুলবেন যদি সিদ্ধান্ত নিতে না পারেন। তাহলে দুটোই খোলার মাধ্যমে কাজ চালাতে পারেন।

# নিস সিলেক্ট করুন

আপনি যদি ব্যবসায়িক কাজে বা আয় করার ‍উদ্দেশ্যে চ্যানেল খোলেন তবে নির্দিষ্ট নিস নিয়ে কাজ করুন।

যেকোনো সোস্যাল মিডিয়ায় সফলতার জন্য নির্দিষ্ট নিস নিয়ে কাজ করতে হয়।

নিস সিলেক্ট করার পর হঠাৎ করে নিস পরিবর্তন করবেন না; যেমন: রাতারাতি গ্রুপের নাম হ্যাকিংয়ের টুকিটাকি থেকে ফানি ভিডিও করে দিলেন। অধিকাংশ চ্যানেলের অডিয়েন্স এই কারণে হারায়।

# সাধারণ ও আকর্ষনীয় লোগো

অধিকাংশ চ্যানেলের মালিক এই একটি কাজে ভুল করে। তারা লোগে দেয়ার সময় গুগল থেকে লোগে ডাউনলোড করে দিয়ে দেয়; যেটা অতটা সুন্দর বা আপনার চ্যানেলের ভাবার্থ বহন করে না।

লোগে নির্বাচনের সময় সুন্দর ও স্বচ্ছ লোগো ব্যবহার করুন। যাতে দর্শক একবার দেখে বুঝে যায় চ্যালেন সম্পর্কে আইডিয়া করতে পারে।

# চ্যানেলের নামে কিওয়ার্ড

আপনার চ্যানেলটি যে সম্পর্কে করতে চান, সেই রকম কিছু কিওয়ার্ড খুজে বের করুন।

টেলিগ্রাম চ্যানেলের নামে কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন। কারণ কিওয়ার্ড দিয়ে চ্যানেলের নাম দিলে দুটি সুুবিধা।

দর্শক আপনার চ্যানেলের নাম দিয়ে আইডিয়া করতে পারবে চ্যানেলে কেমন কন্টেন্ট পাওয়া যাবে। কেউ আপনার কন্টেন্টের অনুরুপ কিছ চেয়ে সার্চ করলে আপনার চ্যানেল দেখানো হবে।

# নিয়মিত পোস্ট করুন

আপনার চ্যানেলে নিয়মিত পোস্ট করতে হবে। আপনি একদিন পোস্ট করে ৬মাস হারিয়ে গেলে হবে না।

তবে নিয়মিত পোস্ট করা মানে এই না দিনে ১০০ টা পোস্ট করবেন। যদি দিনে একটি করে পোস্ট করেন, তবে প্রতিদিন এটা করার চেষ্টা করুন।

নিয়মিত পোস্ট করতে টেলিগ্রাম বটের সাহায্য নিতে পারেন। ফ্রিতে অনেক টেলিগ্রাম বট পাবেন, যা নির্দিষ্ট সময়ে পোস্ট করতে সাহায্য করবে।

# বেশি পোস্ট করা পরিহার করুন

অন্যান্য সোস্যাল মিডিয়া থেকে টেলিগ্রাম একটু ভিন্ন। প্রতিটি পোস্টের জন্য নোটিফিকেশন দেয়া হয়। আপনি যদি দিনে ১০০ টা করে পোস্ট করেন; অধিকাংশ লোক বিরক্ত হয়ে মিউট করে দিতে পারে।

আমার পরামর্শ হল যতটা সম্ভব কম ও ইউনিক পোস্ট করুন।

টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয় করার উপায়?

আমি অনলাইন আয় নিয়ে অনকে লেখা প্রকাশ করেছি। যেগুলোর কনসেপ্ট দেখবেন প্রায় এক। সোস্যাল মিডিয়া থেকে আয় করা উপায় প্রায় একই হয়ে থাকে।

আপনার আয় করার উপায় গুলোর থেকে কিভাবে মেম্বার বাড়োনো যায় তার দিকে ফোকাস করা বেশি দরকার। অনলাইনের প্রায় সকল জায়গায় আপনার যত ভিজিটর তত টাকা।

যদি আপনার একটা ভালো অংকের ভিজিটর থাকে তাহলে নিচের সবগুলো মাধ্যমে টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

#১. টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়: পণ্য বিক্রি করুন

আপনার নিজের পণ্য হোক বা এফিলিয়েট (Amazon, Aliexpress, Flipkart) প্রডাক্ট খুব সহজে টেলিগ্রামের মাধ্যমে প্রচার করতে পারেন। এখানেও (ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম) এর মতো প্রডাক্টের প্রচার করতে পারেন।

অন্যান্য সোসাল সাইটের তুলনায় টেলিগ্রামে অডিয়েন্সের এঙ্গেজমেন্ট (engagement) রেটি বেশি থাকে। টেলিগ্রামে প্রায় সবসময় ৩০% এর উপরে এঙ্গেজমেন্ট রেট বা রেসপন্স রেট থাকে; যেখানে অন্য সোস্যাল সাইটগুলোয় ১০% এর উপরে এঙ্গেমেন্ট রেট করা অনেক কষ্টের।

টেলিগ্রামের সবচাইতে বড় সুবিধা হল প্রতি পোস্টের জন্য ইউজাররা নোটিফিকেশন পায়। নোটিফিকেশন অটোমেটিক অন থাকে; তাই অফার, ডিসকাউন্টের পোস্ট মিস হওয়ার সম্ভাবণা অনেক কম।

আপনি অন্য সোস্যাল সাইটের তুলনায়, টেলিগ্রাম ব্যবহার করে পণ্যের প্রচার করতে পারেন বেশি ভালোভাবে। এবং বিক্রি হওয়ার সম্ভাবণা অনেক বেশি থাকে।

#২. টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়: বিজ্ঞাপণ দিয়ে আয়

টেলিগ্রামের গ্রুপ বা চ্যানেলগুলো খুজে বের করা একটু ঝামেলার। এখানে গ্রুপ বা চ্যানেল খোলার পর মেম্বর জোগাড় করা অনেক পরিশ্রমের।

অনেকে অন্য চ্যানেল বা গ্রুপের মাধ্যমে নিজের চ্যানেলের ভিজিটর বাড়িয়ে নেয়। আপনার চ্যানেলে অনেক ফলোয়ার থাকলে আপনার নিস রিলেডেট চ্যানেলের প্রমোশন করে টাকা আয় করতে পারেন।

টেলিগ্রাম চ্যানেলটি যদি লোকাল হয়, তবে লোকাল কোনো দোকানে থেকে স্পন্সার নিতে পারেন। আপনি আপনার চ্যানেলে প্রতিটি পোস্টের জন্য কিছু টাকা নিতে পারেন।

স্থানীয় বিজ্ঞাপণ পেতে আপনার এলাকায় খোজ নিন, আপনার নিস রিলেটেড প্রডাক্ট কে কে সেল করছে। তাদের অফার দিন যে তাদের ব্যবসার প্রচারের জন্য কত করে নেবেন উল্লেখ করুন।

#৩. টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়: পেইড চ্যানেল

টেলিগ্রাম অনেক সিকিউর একটি ম্যাসেজিং প্লাটফর্ম। তাই এখানে ভিউয়ারদের এক্সেস কন্ট্রোল করার উপায় আছে। আপনি চাইলে আপনার চ্যানেলকে প্রাইভেট করে রাখতে পারেন।

যেমন: আপনি এসইও কোর্স করান। কোর্সগুলো আপনার চ্যানেলে আপলোড করে দিয়ে, টাকার বিনিময়ে স্টুডেন্টদের চ্যানেলের এক্সেস দিন।

আপনি চাইলে বিভিন্ন পেইড ওয়েব সিরিজ বা পেইড কোনোকিছু কিনে টেলিগ্রামের মাধ্যমে ব্যবসা করতে পারেন। যদিও আমি এটা করতে নিষেধ করব। এটা ডিজিটাল ক্রাইম; এবং রিস্কও অনেক।

#৪. টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়: গুগল এডসেন্স

হ্যা, আপনার ধারণা ঠিক!!! টেলিগ্রামের কোনো মনিটাইজেশন সিস্টেম নেই। গুগল এডসেন্স টেলিগ্রামে এনেবল হবে না। তাহলে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে কিভাবে আয় করব?

খুবই সাধারণ ট্রিকস অবলম্বণ করতে হবে। আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলের মাধ্যমে ব্লগের বা আপনার ওয়েবসাইটের প্রমোশন করুন।

টেলিগ্রাম চ্যানেলের ফলোয়ারদের আপনার সাইটে ড্রাইভ করান। সাইটে ভিজিটর বাড়লে আয় বাড়বে; এটা খুবই সাধারণ বিষয়।

#৫. টেলিগ্রাম থেকে টাকা আয়: বিক্রি করে দিন

আপনার চ্যানেলে যদি অনেক অনেক ফলোয়ার থাকে; চ্যানেলটা যদি কোনো নির্দিষ্ট নিসের উপর থাকে। তাহলে খুব সহবে ভালো অংকের টাকায় চ্যানেলটা বিক্রি করতে পারেন।

আপনার চ্যানেলটি বিক্রির জন্য বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করুন। ভালো ফলাফলের জন্য দাম নির্ধারণ করে দিতে পারেন।

টাকা নেয়ার পর বা যেকোনো অথেনটিক উপায়ে আপনার চ্যানেলের ওনারশিপ ট্রান্সফার করুন। ফ্রড ও স্ক্যাম থেকে নিজেকে রক্ষা করতে সতর্কতা অবলম্বন করুন।

টেলিগ্রাম থেকে আয় করতে মেম্বার বাড়ানোর টিপস

টেলিগ্রাম চ্যানেল হোক বা ইউটিউব সকল সোস্যাল মিডিয়া প্লাটফরমে আয় করার পূর্বশর্ত ফলোয়ার বা অডিয়েন্স। আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে যদি অডিয়েন্স না থাকে তাহলে এক টাকাও আয় করতে পারবেন না।

তাই টেলিগ্রাম চ্যানেল বা গ্রুপে আয় করার জন্য মেম্বার বাড়ানোর কিছু টিপস শেয়ার করলাম। পোস্টের উপরের টিপসগুলো কোয়ালিটি নিয়ে; এখন মার্কেটিং নিয়ে আলোচনা করছি; শুধু কোয়ালিটি দিয়ে প্রডাক্ট বিক্রি করা যায় না, মার্কেটিং ও দরকার আছে।

আপনার চ্যানেল বা গ্রুপের মার্কেটিং টিপসগুলো হল:

# আপনার বন্ধুর সাথে শেয়ার করুন

টেলিগ্রাম চ্যানেলে প্রথম ২০০-২৫০ মেম্বার জোগাড় করা সহজ। আপনি আপনার বন্ধুদের জয়েন করান, বন্ধুরা তাদের বন্ধুদের জয়েন করাক। এভাবে সহজে ২০০-২৫০ মেম্বার জোগাড় করতে পারবেন।

# ক্রস প্রচার

আপনার চ্যানেলে ২০০০+ সাবস্ক্রাইবার হয়ে গেলে, একই নিস রিলেটেড অন্য চ্যানেলের মালিকের সাথে যোগাযোগ করুন।

আপনি তার চ্যানেলের লিংক নিজের চ্যানেলে ও আপনার চ্যানেলের লিংক তার চ্যানেলে প্রচারের শর্তে প্রচার করুন। এত বিনা খরচে আপনার চ্যানেলের প্রমোশন হয়ে যাবে।

সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২০০০ এর নিচে হলে সাধারণত কোনো চ্যানেলের মালিক কোলাবরেট করতে চায় না। তাই কম সাবস্ক্রাইবার হলে এই ট্রিকসটি কাজে লাগবে না।

# সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচার করুন

আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলের লিংক অন্য সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচার করুন।

যেমন: ফেসবুক গ্রুপ, টুইটার, ইউটিউব ইত্যাদি সোস্যাল সাইটে আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলের লিংক দিন। আপনার ফলোয়ারদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে যোগ দিতে অনুরোধ করতে পারেন।

# পেইড বিজ্ঞাপন ও মেম্বার কিনতে পারেন

আপনি যদি নিজের ব্যবসা প্রচারের জন্য, টেলিগ্রাম চ্যানেলের ব্যবহার করেন; তবে পেইড বিজ্ঞাপনের সাহায্যে মেম্বার বাড়াতে পারেন।

কিন্ত যদি আয়ের উদ্দেশ্যে টেলিগ্রাম ব্যবহার করেন, তাহলে পেইড বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে মেম্বার না বাড়ানোর পরামর্শ দেব। কারণ অর্গানিক পদ্ধতিতে পাওয়া মেম্বার হচ্ছে হিরা; এটা পেইড ভাবে পাবেন না।

অনেকে আপনাকে মেম্বার কেনার পরামর্শ দিতে পারে। মেম্বার কিনে টেলিগ্রাম থেকে খুব বেশি আয় করতে পারবেন না। আর যদি একান্তই কিনে থাকেন বট মেম্বার কিনবেন না। বট মেম্বার সাধারণত ইনেকটিভ থাকে; টেলিগ্রাম ইনেকটিভ মেম্বার সরয়ে দেয়ার ঘষণা দিয়েছে। তাছাড়া ইনেকটিভ মেম্বার দিয়ে আপনার ব্যবসার কোনো উপকার হবে বলে আমার মনে হয় না।

কিভাবে টেলিগ্রাম চ্যানেল তৈরি করব?

টেলিগ্রাম চ্যানেল তৈরি করতে menu ট্যাব ক্লিক করার পর New Channel অপশন সিলেক্ট করুন। এবপর চ্যানেলের নাম, ডেসক্রিপশন ও লোগো সিলেক্ট তরে Create বাটনে ক্লিক করুন। আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেল রেডি।

টেলিগ্রাম থেকে কি আয় করা যায়?

অবশ্যই আয় করা যায়। টেলিগ্রাম থেকে আয়ের অনেক উপায় আছে; আমি তার ভিতর থেকে ৫টি আলোচনা করেছি।

টেলিগ্রাম কি চ্যানেলের জন্য টাকা দেয়?

না। টেলিগ্রামের নিজস্ব মনিটাইজেশন সিস্টেম নেই। তবে বিভিন্ন উপায়ে টেলিগ্রাম থেকে ভালো মানের আয় করা সম্ভব।

টেলিগ্রাম থেকে কি দিনে ১০০ টাকা আয় করা যায়?

খুব সহজে, টেলিগ্রাম থেকে দিনে ১০০ টাকা আয় করা যায়।

সোস্যাল মিডিয়া থেকে আয় করার সকল উপায় জানতে নিচের পোস্টগুলো পড়ুন।

প্রযুক্তির প্রতি চরম আকর্ষণ থেকেই টেলিকমিউনিকেশনে পড়ছি। প্রযুক্তির কঠিন বিষয়গুলি সহজভাবে মানুষকে বলতে খুবই ভাল্লাগে। এই ভালোলাগা থেকেই লেখালিখি শুরু। ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও নেটওয়ার্কিং প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা আমার নেশা ও পেশা।

মন্তব্য করুনঃ-